অসুস্থ খালেদা জিয়া, দলের ভবিষ্যত নিয়ে শঙ্কিত নেতাকর্মীরা

অসুস্থ খালেদা জিয়া, দলের ভবিষ্যত নিয়ে শঙ্কিত নেতাকর্মীরা

জাতীয়

রাজশাহী টাইমস ডেক্সঃ

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার অসুস্থতা শঙ্কা আর উদ্বেগের কারণ হয়ে দেখা দিয়েছে দলটির নেতাকর্মীদের মধ্যে।

বিএনপির ভবিষ্যত নিয়েও শঙ্কিত কেউ কেউ। দীর্ঘদিন ধরে রাজনৈতিক নিষ্ক্রিয়তা দলীয় প্রধানের এই পরিণতির অন্যতম কারণ বলেও মনে করেন অনেকে।

১১ই এপ্রিল নমুনা পরীক্ষায় বিএনপি চেয়ারপার্সনের করোনা শনাক্ত হয়। অবস্থার অবনতি হলে ২৭শে এপ্রিল গুলশানের ভাড়াবাড়ি ফিরোজা থেকে রাজধানীর একটি হাসপাতালে নেয়া হয় তাকে। প্রায় একমাস হতে চললো সেখানেই আছেন খালেদা জিয়া। তাই দলীয় প্রধানের অসুস্থতা ঘিরে নেতাকর্মীদের মনে জন্ম নিয়েছে উদ্বেগ উৎকন্ঠা।

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু বলেন, ‘তার অসুস্থতা আমাদের জন্য খুব হৃদয়বিদারক। নেতাকর্মীরা এখন তার অনুপস্থিতি বুঝতে পারে। আর এই অবস্থা থেকে উত্তরণের জন্য তারা আরও বেশি শক্তিশালী হচ্ছে।’

তিনি আরও জানান, নেতাকর্মীরা যখন যেভাবে পারছে দলীয় প্রধানের জন্য মাঠে থাকার চেষ্টা করছে।

এদিকে, দলীয় প্রধানের স্বাভাবিক রাজনৈতিক জীবন ফিরিয়ে দিতে নেতাদের ভূমিকা নিয়েও প্রশ্ন উঠেছে দলের ভেতরেই।

বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান মেজর (অব.) হাফিজউদ্দিন আহমেদ বীর বিক্রম বলেন, ‘এখন বিএনপির প্রত্যেক নেতাকর্মীর মনে এই একটি প্রশ্ন যে, বেগম জিয়া কবে সুস্থ হবেন, আদৌ সুস্থ হবেন কিনা। বেগম জিয়া সুস্থ না হলে এই দলের কোন উজ্জল ভবিষ্যত দেখতে পাচ্ছিনা। তিনি সুস্থ হয়ে নেতাকর্মীদের উজ্জিবীত করলে আবার গণতন্ত্র ফিরে পাব।

তিনি আরও বলেন, ‘আমরা যদি নির্লিপ্ত হয়ে থাকি, তিনি কখনও সুস্থ হবেন না। আমরাই তো ব্যর্থ। দলের আমরা যারা নেতা বলে দাবী করি, আমরা কি আমাদের প্রার্থীত ভূমিকা পালন করতে পেরেছি। তার মুক্তির জন্য কার্যকর কিছু তো করতে পারিনি। দল নির্জীব হয়ে পড়াও তার অসুস্থতার বড় কারণ।’

দুর্নীতির মামলায় দণ্ডিত হয়ে ২০১৮ সালের ৮ই ফেব্রুয়ারি কারাগারে যাবার পর থেকেই রাজনীতির মাঠ থেকে আড়ালে চলে যান বিএনপি চেয়ারপারসন। শর্ত সাপেক্ষে সাময়িক মুক্তি পেলেও প্রকাশ্য রাজনীতিতে আর দেখা যায়নি তাকে।

মন্তব্য করুনঃ

আপনার মন্তব্য করুন :