ইউপি নির্বাচন: বিদ্রোহীদের কাছে ধরাশায়ী আ.লীগ প্রার্থীরা

ইউপি নির্বাচন: বিদ্রোহীদের কাছে ধরাশায়ী আ.লীগ প্রার্থীরা

জাতীয়

রাজশাহী টাইমস ডেক্সঃ

ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে বিদ্রোহীদের কাছে ধরাশায়ী আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থীরা। বিদ্রোহীদের কারণে অনেক ইউনিয়ন পরিষদে প্রতিদ্বন্দ্বিতায়ই আসতে পারছেন না দলীয় প্রার্থীরা।

বিদ্রোহী প্রার্থীদের দমনে প্রায় প্রতিটি স্থানীয় সরকার নির্বাচনে ব্যবস্থা নেয়ার কথা বলা হলেও কার্যত কোনও ব্যবস্থাই নেয়নি আওয়ামী লীগ।

গেল ২০শে সেপ্টেম্বর ১১৭টি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের ফলাফলে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন আওয়ামী লীগের ২৪ জন বিদ্রোহী প্রার্থী। ওই নির্বাচনে সাতক্ষীরার দুটি উপজেলায় ২১টির মধ্যে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী জিতেছেন সাতটি ইউনিয়ন পরিষদে। আর ৯টিতে জিতেছে আওয়ামী লীগ প্রার্থীরা।

এদিকে, বিদ্রোহীসহ সরকারি দলের একাধিক প্রার্থী থাকার সুবিধা নিচ্ছে বিএনপি ও অন্য দলের প্রার্থীরা। ওই নির্বাচনে বিএনপি অংশ না নিলেও দলটির সাতজন স্বতন্ত্রভাবে লড়ে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন।

এর আগে, ২১ জুন অনুষ্ঠিত ১৬৯টি ইউপি নির্বাচনে একই ধরনের ফল পাওয়া যায়। ওই নির্বাচনি লড়াইয়ে জয়ী হন ৪৯ জন স্বতন্ত্র প্রার্থী, যাদের প্রায় সবাই আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী।

এছাড়া, নোয়াখালীর ১৩টি ইউপির মধ্যে চারটিতে ও চট্টগ্রামের সন্দ্বীপের ১২টির মধ্যে দুটিতে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী জয়ী হয়েছেন। একইভাবে, কক্সবাজারের ১৪টি ইউপির মধ্যে দুটিতে জয়ী হয়েছে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী।

এমন পরিস্থিতির জন্য দলের অভ্যন্তরীণ কোন্দল এড়াতে টাকার বিনিময়ে তৃণমূল থেকে কাউকে প্রার্থী না করার বিষয়ে সতর্ক করেছেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

এর আগে প্রায় প্রতিটি স্থানীয় সরকার নির্বাচনে বিদ্রোহী প্রার্থীদের বিরুদ্ধে কারণ দর্শানোর নোটিশের কথা শোনা গেলেও কার্যত কোনও ব্যবস্থাই নেয়নি আওয়ামী লীগ।

মন্তব্য করুনঃ

আপনার মন্তব্য করুন :