ইমাম মাহদির আগমনের আলামত কোনটি?

ইমাম মাহদির আগমনের আলামত কোনটি?

ইসলাম

ইসলামীক ডেক্সঃ

কেয়ামতের আগে হজরত ইমাম মাহদি আলাইহিস সালামের আগমন করবেন। কেয়ামতের একটি বড় নিদর্শন এটি। কিন্তু অনেকে ইমাম মাহদি আলাইহিস সালামের আগমনের ব্যাপারে কিছু নিদর্শনের কথা কথা বলে বেড়ান। কেউ কেউ বলেন তার আগমনের আগে আরব দেশে তুষারপাত হবে। আবার কেউ কেউ বলেন, নদ-নদী এবং গাছপালায় পূর্ণ হয়ে যাবে আরব উপদ্বীপ। প্রকৃত বিষয়টি কী?

এর কোনোটিই হজরত ইমাম মাহদি আলাইহিস সালামের আগমণের আলামত নয় বরং হাদিসে পাকের একাধিক বর্ণনায় কেয়ামতের আলামত হিসেবে এসেছে যে, ‘আরব উপদ্বীপ নদ-নদী এবং গাছপালায় পূর্ণ হয়ে যাবে।’ তবে তুষারপাতের বিষয়টিও আলোচিত হয়নি। হাদিসের বর্ণনায় থেকে প্রমাণিত যে-

১. হজরত আবু হুরায়রা রাদিয়াল্লাহু আনহু বর্ণনা করেছেন, রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন-

لَا تَقُومُ السَّاعَةُ حَتَّى تَعُودَ أَرْضُ الْعَرَبِ مُرُوجًا وَأَنْهَارًا

ততদিন পর্যন্ত কেয়ামত প্রতিষ্ঠিত হবেনা; যে পর্যন্ত না আরব উপদ্বীপ গাছপালা ও নদী-নালায় পূর্ণ হবে।’ (মুসলিম)

হাদিসের এ বর্ণনা থেকে সুস্পষ্ট যে, কেয়ামতের আগে আরব দেশসমূহে পানির অভাব হবে না। বরং প্রচুর নদ-নদী প্রবাহিত হবে। ফলে গাছ-পালা ও নানা উদ্ভিদ উৎপন্ন হবে এবং বন-জঙ্গলে ভরে যাবে।

২.রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম আরও বলেছেন-

لَا تَقُومُ السَّاعَةُ حَتَّى يُمْطَرَ النَّاسُ مَطَرًا لَا تُكِنُّ مِنْهُ بُيُوتُ الْمَدَرِ وَلَا تُكِنُّ مِنْهُ إِلَّا بُيُوتُ الشَّعَرِ

ততদিন কেয়ামত ঘটবে না; যতদিন না আকাশ থেকে প্রচুর বৃষ্টিপাত হবে। এতে মাটির তৈরি ঘরগুলো ভেঙ্গে পড়বে এবং পশমের ঘরগুলো রক্ষা পাবে’ (মুসনাদে আহমদ)

৩. হজরত আনাস রাদিয়াল্লাহু আনহুর বর্ণনায় রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম আরও বলেছেন-

لَا تَقُومُ السَّاعَةُ حَتَّى يُمْطَرَ النَّاسُ مَطَرًا عَامًّا وَلَا تَنْبُتَ الْأَرْضُ شَيْئًا

ততদিন পর্যন্ত কেয়ামত হবেনা যে পর্যন্ত না ব্যাপক বৃষ্টিপাত হবে। কিন্তু জমিনে কোন ফসলই উৎপন্ন হবে না’ (মুসনাদে আহমদমাজমাউজ যাওয়াদ)

উল্লেখিত হাদিসগুলোতে কেয়ামতের আলামত বলা হয়েছে। কিন্তু ইমাম মাহদি আলাইহিস সালামের আগমনের আগে অধিক বৃষ্টিপাত, তুষারপাত, নদ-নদী কিংবা গাছপালায় ভরে যাবে এমন কোনো বর্ণনা আসেনি। বরং কেয়ামতের আলামত হচ্ছে আরব উপদ্বীপ নদ-নদী এবং গাছপালায় আবাদ হবে।

আর কেয়ামতের আগে আগমন করবেন হজরত ইমাম মাহদি আলাইহিস সালাম। বরং তাঁর আগমনই কেয়ামতের আলামতসমূহের মধ্যে অন্যতম।

সুতরাং আরব দেশে বৃষ্টিপাত ও নদ-নদী প্রবাহিত হওয়ার হাদিসগুলো কেয়ামতের আলামত প্রসঙ্গে এসেছে; ইমাম মাহদি আলাইহিস সালামের আগমনের আলামত প্রসঙ্গে নয়।

তবে এটি ঠিক যেহেতু ইমাম মাহদি আলাইহিস সালামের আগমনও কেয়ামতের একটি অন্যতম আলামত। সুতরাং এ দৃষ্টিকোণ থেকে চিন্তা ও গবেষণা করলে বুঝা যায় যে, ইমাম মাহদি আলাইহিস সালামের আগমন  এবং আরব দেশে নদ-নদীর প্রবাহিত হওয়ার বিষয়টি প্রায় একই সূত্রে গাঁথা।

আল্লাহ তাআলা মুসলিম উম্মাহকে দুনিয়ার সব ফেতনা থেকে মুক্ত থাকার তাওফিক দান করুন। আমিন।

মন্তব্য করুনঃ

আপনার মন্তব্য করুন :