কাটাখালীর ঘটনায় বাস ড্রাইভার গ্রেপ্তার

কাটাখালীর ঘটনায় বাস ড্রাইভার গ্রেপ্তার

রাজশাহী

নিজেস্ব প্রতিবেদকঃ

রাজশাহীর কাটাখালীতে বেপরোয়া গতিতে গাড়ি চালিয়ে ১৭ জনকে হত্যা ও কয়েকজনকে জখমের অভিযোগে হানিফ পরিবহনের চালক আব্দুর রহিমকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

রহিম পুঠিয়া উপজেলার পীরগাছা গ্রামের ফজলুর রহমানের ছেলে। এর আগে বেপরোয়া গতিতে গাড়ি চালিয়ে ১৭জনকে হত্যা ও কয়েকজনকে জখমের অভিযোগে কাটাখালি থানা পুলিশ বাদী হয়ে রহিমের বিরুদ্ধে শুক্রবার রাতে একটি মামলা দায়ের করা হয়। 

কাটাখালী থানার ওসি মতিয়ার রহমান জানান, বেপরোয়া গতিতে গাড়ী চালিয়ে হানিফ পরিবহনের চালক মাইক্রোবাসটিকে ধাক্কা দেয়। এতে এ ঘটনায় ১৭ জন মারা যান। আহত হন আরো কয়েকজন। এ ঘটনায় পুলিশ বাদী হয়ে শুক্রবার দিবাগত রাতে মামলাটি দায়ের করেছে। শনিবার দুপুর ২ টার দিকে আসামী রহিমকে বেলপুকুর থানার মহেন্দ্রা বাইপাস থেকে গ্রেপ্তার করা হয়। 

এদিকে নিহত ১৭ জনের মধ্যে ৫ জনের লাশ শনিবার দুপুরে শনাক্ত করেছে নিহতদের স্বজনরা। এরা হলেন পীরগঞ্জেরর ফুলমিয়া, তার দুই মেয়ে সামিয়া ও সাবিহা, তাজুল ইসলাম ভুট্টো ও তার ছেলে ইয়ামিন। অন্য ১২ জনের লাশ পুড়ে বিকৃত হয়ে যাওয়ায় তাদের চিনতে পারছে না স্বজনরা। 

উল্লেখ্য, চারটি পরিবারের ১৮জন সদস্য পীরগঞ্জ থেকে রাজশাহীতে বেড়াতে আসছিলেন। শুক্রবার দুপুরে হানিফ পরিবহনের সঙ্গে মাইক্রোবাসের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে সিলিন্ডার বিস্ফোরনে আগুন ধরে যায়। ১১ জন আগুনে পুড়ে মারা যান। আহত আরো ৬জন মারা যান হাসপাতলে। মাইক্রোবাসে থাকা পাভেল নামের একমাত্র কিশোর বেঁচে যান। তবে তার অবস্থাও সংকটাপন্ন। তাকে রাখা হয়েছে আইসিইউতে। 

মন্তব্য করুনঃ

আপনার মন্তব্য করুন :