কারিগরি ও মাদ্রাসা শিক্ষার্থীদের জন্য সুখবর

কারিগরি ও মাদ্রাসা শিক্ষার্থীদের জন্য সুখবর

শিক্ষা

রাজশাহী টাইমস ডেক্সঃ

২০২০-২১ অর্থবছরে পরিচালন বাজেটে কারিগরি ক মাদ্রাসা শিক্ষা বিভাগ, শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অধীন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, শিক্ষক ও ছাত্র/ছাত্রীদের জন্য বিশেষ মঞ্জুরি হিসেবে বরাদ্দকৃত অর্থ উপযুক্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, শিক্ষক ও ছাত্র/ছাত্রীদের মধ্যে স্বচ্ছ ও সুষ্ঠুভাবে বিতরণের লক্ষ্যে একটি নীতিমালা জারি করেছে কারিগরি ও মাদ্রাসা শিক্ষা বিভাগ।

মঙ্গলবার (৫ জানুয়ারি) কারিগরি ও মাদ্রাসা বিভাগের সিনিয়র সহকারী সচিব সাবিনা ইয়াসমিন স্বাক্ষরিত এ সংক্রান্ত এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে উক্ত নীতিমালা অনুযায়ী নিম্নবর্ণিত শর্তে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, শিক্ষক/শিক্ষিকা এবং ছাত্র/ছাত্রীদের কাছ থেকে আবেদন আহবান করা যাচ্ছে:

১। এবতেদায়িসহ দেশের সব স্বীকৃতিপ্রাপ্ত এমপিওভুক্ত ও এমপিওবিহীন বেসরকারি কারিগরি ও মাদ্রাসা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান মেরামত ও সংস্কার, আসবাবপত্র তৈরি, খেলাধুলার সরঞ্জাম ক্রয়, পাঠাগার উন্নয়ন ও প্রতিষ্ঠানকে প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীবান্ধব করার জন্য বিশেষ মঞ্জুরির আবেদন করতে পারবে। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বাছাইয়ের ক্ষেত্রে অনগ্রসর এলাকার অসচ্ছল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান অগ্রাধিকার পাবে।

২। দেশের সকল সরকারি বেসরকারি কারিগরি/মাদ্রাসা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষকগণ তাদের দুরারোগ্য ব্যাধির চিকিৎসা ও দৈব দুর্ঘটনার জন্য মঞ্জুরি আবেদন করতে পারবে।

৩। সরকারি-বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা দুরারোগ্য ব্যাধির চিকিৎসা, দৈব দুর্ঘটনা এবং চিকিৎসা খরচের জন্য বিশেষ মঞ্জুরির অনুদান প্রাপ্তির আবেদন করতে পারবেন। এক্ষেত্রে প্রতিবন্ধী, অসহায়, অসচ্ছল ও মেধাবী, অনগ্রসর সম্প্রদায়ের শিক্ষার্থীরা অগ্রাধিকার পাবেন বলে বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে।

৪। উক্ত খাতে মঞ্জুরি/অনুদান প্রাপ্তির জন্য আগ্রহী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, শিক্ষক ও ছাত্র-ছাত্রীকে আগামী ২৮ ফেব্রুয়ারির মধ্যে কারিগরি ও মাদ্রাসা শিক্ষা বিভাগের সচিব বরাবর সরাসরি অথবা জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে বা সরাসরি আবেদন করতে হবে।

৫। ছাত্রছাত্রীদের আবেদনের ক্ষেত্রে অবশ্যই স্থায়ী ঠিকানা উল্লেখ করতে হবে।

৬। জেলা যাচাই-বাছাই কমিটির সুপারিশ করা আবেদন এবং সরাসরি পাওয়া আবেদন যাচাই-বাছাই করে কারিগরি ও মাদ্রাসা শিক্ষা বিভাগের এ সংক্রান্ত যাচাই-বাছাই কমিটি চূড়ান্ত তালিকা প্রণয়ন করবে।

নীতিমালাটি কারিগরি ও মাদ্রাসা শিক্ষা বিভাগের ওয়েবসাইটে দেওয়া হয়েছে।

মন্তব্য করুনঃ

আপনার মন্তব্য করুন :