চার শিশুকে যৌন হয়রানি, শিক্ষকের বিরুদ্ধে চার্জশিট

চার শিশুকে যৌন হয়রানি, শিক্ষকের বিরুদ্ধে চার্জশিট

রাজশাহী

স্টাফ রিপোর্টারঃ

বগুড়ার ধুনটে শ্রেণিকক্ষে চার শিশু শিক্ষার্থীকে যৌন হয়রানি মামলায় আসামি আবু তালেবের (২৮) বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র জমা দেওয়া হয়েছে।

সোমবার (৩০ মে) অভিযোগপত্র জমা দেওয়া হয়। মঙ্গলবার (৩১ মে) দুপুরে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ধুনট থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) আব্দুস সালাম আজাদ এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

আবু তালেব উপজেলার পাঁচথুপি গ্রামের শামছুল ইসলামের ছেলে এবং পাঁচথুপি মারকাযুশ শরইয়্যাহ হাফিজিয়া কওমিয়া মাদরাসার শিক্ষক। তিনি বর্তমানে বগুড়া জেলা কারাগারে আটক রয়েছেন।

মামলা সূত্রে জানা যায়, ২০১৯ সালে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানটি গড়ে তোলেন স্থানীয় বিষ্ণুপুর গ্রামের মাওলানা মাসুদুর রহমান। প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে ওই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে সহকারী শিক্ষক পদে কর্মরত দুই সন্তানের বাবা হাফেজ আবু তালেব। তিনি শিক্ষকতার পাশাপাশি পার্শ্ববর্তী নসরৎপুর গ্রামে একটি মসজিদে ইমামতি করেন।

গত ৩০ মার্চ বেলা শ্রেণিকক্ষে পাঠদানকালে প্রথম শ্রেণির এক ছাত্রীকে (৬) আদর করার ছলে কাছে ডেকে যৌন হয়রানি করেন আবু তালেব। পরে শিশুটি বাড়িতে গিয়ে তার বাবার কাছে ঘটনাটি খুলে বলে। বিষয়টি নিয়ে অভিভাবকদের মধ্যে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়। এক পর্যায়ে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে গিয়ে আবু তালেবকে আটকের পর থানায় সোপর্দ করেন স্থানীয় জনতা।

এ ঘটনায় ওই শিশু শিক্ষার্থীর বাবা বাদী হয়ে আবু তালেবের বিরুদ্ধে থানায় একটি মামলা করেন।

এ ঘটনার একমাস আগে ওই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের দ্বিতীয় শ্রেণির দুই শিশু ও প্রথম শ্রেণির এক শিশু শিক্ষার্থীকে শ্রেণিকক্ষে একই কৌশলে যৌন হয়রানি করেন আবু তালেব।

ধুনট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কৃপা সিন্ধু বালা বলেন, মামলার তদন্তে হাফেজ আবু তালেব দোষী সাব্যস্ত হওয়ায় তার বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র জমা দেওয়া হয়েছে।

মন্তব্য করুনঃ

আপনার মন্তব্য করুন :