জনপ্রতিনিধিরা বার বার কথা দিয়েও সংস্কার হয়নি নান্দিগ্রামের রাস্তাটি দুর্ভোগে জনজীবন

জনপ্রতিনিধিরা বার বার কথা দিয়েও সংস্কার হয়নি নান্দিগ্রামের রাস্তাটি দুর্ভোগে জনজীবন

রাজশাহী

মোঃ মিজানুর রহমানঃ

রাজশাহীর দূর্গাপুর উপজেলার ১নং গনকৈড় ইউনিয়ন ৫নং ওয়ার্ডের মোহনগঞ্জ হতে তাহেরপুর প্রধান সড়কের মাঝখানে, নান্দিগ্রাম মোড় দিয়ে বেশ কয়েকটি গ্রামের লোকের চলাচল করার রাস্তা (আলীপুর দূর্গাপুর শিবপুর বানেশ্বর রাজশাহী) যাবার শুরুতেই নান্দীগ্রাম মোর হতে প্রায় দেড় (১.৫) কিঃমিঃ রাস্তায় জন্য কয়েকটি গ্রামের লোকজন দাবি জানালে গত ১৭ বছর থেকে স্থানীয় নেতারা বলে আসছেন রাস্তাটি মুন্জুর হয়ে গেছে শুধু কাজ শুরু হবার বাকি গত ২০২১ সালের জুন মাসে এ ও বলা হয় সালের প্রথমে রাস্তার কাজ শুরু হবে।

আর এমন অনেক নজির আছে যারা ভোট চাইতে এসে বলেছেন আমি যদি এই রাস্তার কাজ করে দিতে না পারি তাহলে আর আপনাদের সামনে ভোট চাইতে আসবো না, এলাকার লোকজন বলেন ঠিক এমন করে কলা ঝুলিয়ে আসছে অনেক নেতারা।

তারা আরো বলেন বর্তমান এই সরকারের সময় যে পরিমান উন্নয়ন হচ্ছে সেটা সারাবিশ্বের মানুষ দেখছে অথচ আমাদের এলাকায় রাস্তাঘাটের এমন অবস্থা বৃষ্টি হলে বিয়ের দিন পযর্ন্ত পরিবর্তন করতে হয়, আর গ্রামের মধ্যে যা রাস্তা ছিল সেই সব রাস্তার এখন আর একটি বাইসাইকেল যাবার পরিবেশ নেই। এই দায়িত্ব আসলে কাহাদের উপর পড়ে আমরা রাষ্ট্রের কাছে জানতে চাই আমরা কি আমাদের মৌলিক অধিকার পাব না।

কে নেব আমাদের দায়িত্ব, সামনে আষাড় মাস আসছে আমরা যদি জরুরি কোনো রুগি হাসপাতালে নিতে চাই তাহলে বাঁশের ভার বানিয়ে তাতে করে ঘাড়ে করে নিয়ে যেতে হয়, বর্তমানের ডিজিটাল বাংলাদেশে আমাদের অবস্থা কেন সেই প্রাচীন যুগের অবস্থার মতো থাকবে।

আসলে কে দেবে গ্রামের এই সহজ সরল মানুষের প্রশ্নের উত্তর আর কত বছর অপেক্ষা করতে হবে তাদের এই মাএ ১.৫ কিলোমিটার রাস্তা জন্য। বার বার তাদের আস্থা দিয়ে ভরসা দিয়ে ভোট নিয়ে জন প্রতিনিধি হয়ে সফলে আসেনি রাজশাহী দুগাপুর নান্দিগ্রামের বাসিন্দাদের।

মন্তব্য করুনঃ

আপনার মন্তব্য করুন :