তাহেরপুর পৌর নির্বাচনকে ঘিরে প্রচার প্রচারণায় প্রার্থীরা

তাহেরপুর পৌর নির্বাচনকে ঘিরে প্রচার প্রচারণায় প্রার্থীরা

তাহেরপুর

আঃ আলিম সরদার,নিজেস্ব প্রতিনিধিঃ

আসন্ন ১৪ ফেব্রুয়ারী পৌর নির্বাচনকে ঘিরে প্রতিক বরাদ্দ পর থেকে প্রচার প্রচারণায় এখন মুখর রাজশাহীর বাগমারা উপজেলার তাহেরপুর পৌরসভা। আর এ নির্বাচনকে সামনে রেখে প্রার্থী ও ভোটারদের মধ্যে দেখা দিয়েছে উৎসবমুখর পরিবেশ। রাস্তা,ঘাট, হাট-বাজার ও অলিগলি নির্বাচনের প্রার্থীদের পোস্টার আর ব্যানারে ছেয়ে গেছে পুরো পৌর এলাকার জনপথ।

সেই সাথে প্রার্থীদের চলছে উঠান বৈঠক, আলোচনা সভা, মিছিল, গণসংযোগ ও গানের তালে তালে মাইকিং। এ অবস্থায় সাধারণ ভোটাররা চান সব ধরনের সংঘাত এড়িয়ে উৎসবমুখর পরিবেশে ভোট দিতে।

এ পৌরসভায় ভোটের মাঠে মেয়র পদে ধানের শীষে প্রার্থী তাহেরপুর পৌর জাতীয়তাবাদী দল বিএনপির সভাপতি ও সাবেক মেয়র আ.ন.ম শামসুর রহমান মিন্টুর সাথে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন পৌর আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ও দু’ দু’বারের নির্বাচিত মেয়র আবুল কালাম আজাদ নৌকা প্রতীক নিয়ে। তিনি খয়রা, কোয়ালীপাড়া, জামগ্রাম, নুরপুর, জগোগনাথপুর, বিশুপাড়া, জামলই, মথুরাপুরসহ বিভিন্ন মহল্লায় গণসংযোগ কালে ভোটাদের বলছেন, মেয়র আবুল কালাম আজাদ কর্তৃক গত ১০ বছরে তাহেরপুর পৌরসভায় যে উন্নয়ন হয়েছে তা আগে কোনো মেয়র করেনি।

আমার সময়ের বড় উন্নয়ন গুলো হলো, তাহেরপুর পৌর ভবনের জমিসহ পৌর ভবন নির্মাণ, তাহেরপুর পৌর অডিটরিয়ম নির্মান, তাহেরপুর পৌর বাস টার্মিনাল নির্মাণ, তাহেরপুর পৌর মার্কেট নির্মাণ, তাহেরপুর শহর রক্ষা বেড়িবাঁধ নির্মাণ, তাহেরপুর বাজারের পানি নিষ্কাশন ড্রেন নির্মাণ, তাহেরপুর পৌরসভার গুরুত্বপুর্ণ রাস্তায় লাইট ও আলোর ব্যবস্থা করন, তাহেরপুর পৌর কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার নির্মাণ, তাহেরপুর ডিগ্রী কলেজের সামনে বঙ্গবন্ধুর মুরাল নির্মাণ, ইন্টারনেট ব্যবহার কারিদের জন্য শহীদ মিনার ও পৌরভবন চত্ত¡রে ফ্রি ওয়াই-ফাই জোন লাগানো, পৌরসভার প্রতিটি মসজিদে সোলার প্যানেল স্থাপন, পৌরসভার ১২ টি মসজিদের ছাদ নির্মাণ, তাহেরপুর হাটের পানি নিষ্কাশনের জন্য তাহেরপুর হাইস্কুল হতে মাদ্রাসা মোড় হয়ে তিলিপড়ার নদি পর্যন্ত কভার ড্রেন নির্মাণ, তাহেরপুর পান হাটা হতে মথুরাপুর হয়ে সুলতানপুর পর্যন্ত বাইপাস রাস্তা নির্মাণসহ প্রায় ২০টি প্রাকল্প বাস্তবায়ন করেছি।

যা পৌরসভা বাস্তবায়নের পর থেকে কেউ করেনি। তাই বাস্তব উন্নয়ন দেখে পৌরবাসীর ভালোবাসায় আগামী ১৪ ফেব্রæ য়ারী পৌর নির্বাচনে দলমত র্নিবীশেষে আপনাদের ভোটের মাধ্যমে আবারও ইনশাল্লাহ মেয়র নির্বাচিত হবো। তবে পৌরসভার নির্বাচনকে সামনে রেখে এরই মধ্যে জেলা, উপজেলা, পৌরসভাসহ তৃণমূলের নেতারা কাজ শুরু করেছেন নৌকা বিজয়ের লক্ষে্য। এদিকে নৌকার কর্মীরা জানান, তাহেরপুর পৌর আওয়ামীলীগ সাধারণ সম্পাদক বর্তমান মেয়র আবুল কালাম আজাদ ছাত্রজীবন থেকে রাজনীতি করে আসছেন।

বর্তমানে তিনি সফল মেয়র হিসেবে কাজ করেছেন বলে দাবি করেন । এছাড়া বিগত নির্বাচনে নিজ দলীয় পৌর আওয়ামীলীগ সভাপতি মুনছুর রহমান মৃধাকে বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে পরাজিত করে বিজয়ী হয়ে দলের আস্তাভাজন হন এবং তিনি পৌরসভা এলাকায় আ.লীগের অন্যতম কর্ণধার। মেয়র নির্বাচিত হয়ে আবুল কালাম আজাদ তাহেরপুর পৌর এলাকায় ব্যাপক উন্নয়ন করেছেন।

মেয়র নির্বাচিত হবার পর পৌরবাসীর নানা সুযোগ-সুবিধা নিশ্চিত করেছেন এবং তার কাজের জন্যই ভোটাররা তাকে আবারো জয়ী করবেন এমন আশা নিয়ে প্রতিটি মহলায় গনসংযোগ করে যাচ্ছেন তিনি। অপরদিকে, ধানের শীষের প্রার্থী সাবেক মেয়র আ.ন.ম শামসুর রহমান মিন্টু বিভিন্ন পাড়া মহল্লায় ভোটারদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে দলীয় ধানের শীষ প্রতীকে ভোট প্রার্থনা করছেন ভোটারদের কাছে।

তিনি ভোটারদের বলেছেন, নির্বাচনে দলমত নির্বিশেষে তাকে ১৪ ফেব্রুয়ারী তাহেরপুর পৌরসভার মেয়র নির্বাচিত করা হলে এ পৌরসভায় অসমাপ্ত কাজ করে সম্পন্ন করে ডিজিটাল পৌরসভায় রুপান্তরিত করা হবে। তবে তিনি আশংকা করছেন, এবারের পৌরসভার নির্বাচনে তার ভোটারেরা ভোট কেন্দ্রে গিয়ে ভোট দিতে পারবে না।

এছাড়াও ৯টি ওয়ার্ডে কাউন্সিলর প্রার্থীসহ সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতায় রয়েছেন। এছাড়াও ৯টি ওয়ার্ডে কাউন্সিলর প্রার্থীসহ সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতায় রয়েছেন। পিছিয়ে নিই কাউন্সিলর ও সংরক্ষতি মহিলা কাউন্সিলর র্প্রাথীরাও, ভোটারদরে দ্বারে দ্বারে গিয়ে ভোট ও দোয়া র্প্রাথনা করছেন।

উল্লেখ্য,বর্তমানে সরকারিভাবে তাহেরপুর পৌরসভার মোট ভোটারের সংখ্যা ১৪ হাজার ৬১৯ জন। তবে মৃত ভোট বাদে ১৩ হাজার ২৪১ জন ভাটার রয়েছে বলে জানাগেছে।

মন্তব্য করুনঃ

আপনার মন্তব্য করুন :