নওগাঁয় স্ত্রীকে নির্যাতন ও মাথার চুল কেটে দেওয়ায় স্বামী আটক

নওগাঁয় স্ত্রীকে নির্যাতন ও মাথার চুল কেটে দেওয়ায় স্বামী আটক

রাজশাহী

স্টাফ রির্পোটারঃ

নওগাঁয় যৌতুকের টাকার দাবিতে মারপিট করে স্ত্রীর মাথার চুল কেটে দেওয়ার অভিযোগে স্বামীকে আটক পুলিশ।সুত্র জানায়, কুষ্টিয়া সদর উপজেলার বেলঘড়িয়া গ্রামের মোজাহার আলী মেয়ে মহসিনা পারভীন (২৮) এর সাথে ঢাকার ভাষানটেক এলাকার এটিএম মোস্তফা কামাল এর ছেলে মোহাম্মদ জাহিদ হাসান (৩৬) সাথে পারিবারিক ভাবে বিয়ে হয়।

বিয়ের পর থেকে পারিবারিক কারণে নওগাঁ সদর উপজেলার চকবিরাম গ্রামের মানছুরা জলিলের ভাড়া বাসায় থাকেন এদম্পতি।স্থানিয় ও পুলিশ সুত্রে জানাযায়, মোহাম্মদ জাহিদ হাসান এর সাথে মহসীনা পারভিনের ৬ বছর পূর্বে পারিবারিকভাবে ইসলামী শরীয়ত মোতাবেক বিবাহ হয়। তাদের ৪ বছরের একটি সন্তান রয়েছে। সন্তান জন্ম গ্রহণের পর থেকে যৌতুকের জন্য শারীরিক ভাবে অত্যাচার ও নির্যাতন শুরু  করেন স্বামী।

বিষয়টি মহসীনা পারভিন সে সময় তার বাবা, মাকে জানালে ৬ লাখ টাকা যৌতুক দেয়। যৌতুক দেওয়ার কিছুদিন না যেতেই আবারো ৫ লাখ টাকা যৌতুকের দাবীতে নির্যাতন শুরু করে স্বামী বলে স্ত্রীর অভিযোগ।ভিকটিম মহসীনা পারভিন সাংবাদিকদের জানান, গত ২১ শে জুলাই দুপুর ১২টার সময় আমার ইচ্ছার বিরুদ্ধে জোর পূর্বক মাথার চুল কেটে ন্যাড়া করে দেয়ার পর আবারো যৌতুকের দাবীতে ৩০ শে জুলাই দিনগত রাত ৮ টারদিকে পুনরায় ৫ লাখ টাকা যৌতুক দাবি করেন আমার স্বামী।

যৌতুক টাকা না দেওয়াতে ক্ষিপ্ত হয়ে আমাকে হত্যার উদ্দেশ্যে এলোপাতাড়িভাবে মারপিট শুরু করলে পার্শ্ববর্তী বাড়ির লোকজন এগিয়ে এসে আমাকে উদ্ধার করেন।মামলার সত্যতা নিশ্চিত করে নওগাঁ সদর মডেল থানার ওসি নজরুল ইসলাম জুয়েল প্রতিবেদককে জানান, গৃহবধূ নির্যাতনের বিষয়ে স্থানিয়দের মাধ্যমে খবর পাওয়ায় তাৎক্ষণিক থানা পুলিশ দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌছে স্ত্রীর অভিযোগের ভিত্তিতে তার স্বামীকে আটক করে থানা হেফাজতে নেয়।

এঘটনায়  নির্যাতিত ( ভিকটিম) গৃহবধূ মহসীনা পারভিন বাদি হয়ে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা রুজু করেছেন। আটককৃত ব্যাক্তিকে বিজ্ঞ আদালতের মাধ্যমে শনিবার নওগাঁ জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

মন্তব্য করুনঃ

আপনার মন্তব্য করুন :