প্রিয় নবির একনিষ্ঠ অনুসারি হওয়ার দোয়া

প্রিয় নবির একনিষ্ঠ অনুসারি হওয়ার দোয়া

ইসলাম

ইসলামীক ডেক্সঃ

সুন্নাতের অনুসরণ ও অনুকরণেই সম্ভব প্রিয় নবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের একনিষ্ঠ অনুসারী হওয়া। বিশ্বনবির অনুসরণে যারা জীবন গড়তে সক্ষম হয়েছেন, তাদের অনুসরণ ও অনুকরণেও মিলবে দুনিয়া ও পরকালীন জীবনের সফলতা। তাই বিশ্বনবির একান্ত অনুসারি হতে পারা তাওফিক কামনায় বেশি বেশি এ দোয়া পড়া-
اَللَّهُمَّ اجْعَلْنِىْ فِيْهِ مُحِبًّا لِاَوْلِيَائِكَ وَ مُعَادِيًا لِاَدَائِكَ مُسْتَنَّأً بِسُنَّةِ خَاتَمِ أَنْبِيّائِكَ يَا عَاصِمَ قُلُوْبِ النَّبِيِّيْنَ
উচ্চারণ : আল্লাহুম্মাঝ আলনি ফিহি মুহিব্বান লি-আওলিয়ায়িকা; ওয়া মুআদিয়ান লি-আদায়িকা; মুসতান্নাআন বিসুন্নাতি খাতামি আম্বিয়ায়িকা; ইয়া আচিমা কুলুবিন নাবিয়্যিন।

অর্থ : হে আল্লাহ! আমাকে তোমার বন্ধুদের বন্ধু বানিয়ে দাও এবং তোমার শত্রুদের শত্রু করে দাও। তোমার আখেরি নবির সুন্নাত ও পথ অনুযায়ী চলার তাওফিক আমাকে দান কর। হে নবীদের অন্তরের পবিত্রতা রক্ষাকারী।

মনে রাখা জরুরি-
রমজানের নামাজ, রোজা, ইবাদত-বন্দেগিসহ যাবতীয় ভালো কাজ যেন রমজানের পরেও অব্যাহত থাকে সেই প্রার্থনা বেশি বেশি করা। বাকি দিনগুলোতে লাইলাতুল কদর তালাশ করার পাশাপাশি প্রিয় নবির বিশেষ দোয়াটিও বেশি বেশি পড়ে ক্ষমা প্রার্থনা করা জরুরি। হাদিসে এসেছে-

হজরত আয়েশা রাদিয়াল্লাহু আনহা বর্ণনা করেন, একবার আমি রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামকে জিজ্ঞাসা করলাম- হে আল্লাহর রাসুল! (সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম) আপনি বলে দিন, আমি যদি লাইলাতুল কদর কোন রাতে হবে তা জানতে পারি, তাতে আমি কী (দোয়া) পড়বো?

রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বললেন, তুমি বলবে-
اللَّهُمَّ إِنَّكَ عُفُوٌّ تُحِبُّ الْعَفْوَ فَاعْفُ عَنِّي
উচ্চারণ : ‘আল্লাহুম্মা ইন্নাকা আফুয়্যুন; তুহিব্বুল আফওয়া; ফাফু আন্নি।’
অর্থ : হে আল্লাহ! আপনি ক্ষমাশীল; ক্ষমা করতে ভালোবাসেন; অতএব আমাকে ক্ষমা করে দিন। (মুসনাদে আহমাদ, ইবনে মাজাহ, তিরমিজি, মিশকাত)

সুতরাং মুমিন মুসলমানের উচিত, রমজানের শেষ দশকের প্রতিটি রাতে ক্ষমা প্রার্থনার বিশেষ এ দোয়াটি বেশি বেশি পড়া। পরকালের সফলতায় আল্লাহর কাছে অপছন্দনীয় যে কোনো কাজ থেকে বিরত থাকতে তার কাছে আশ্রয় প্রার্থনার বিকল্প নেই।

আল্লাহ তাআলা মুসলিম উম্মাহকে তার বন্ধু হওয়ার এবং শুত্রুদের সঙ্গে সম্পর্ক ত্যাগের মাধ্যমে আল্লাহর নৈকট্য অর্জন করার তাওফিক দান করুন। আমিন।

মন্তব্য করুনঃ

আপনার মন্তব্য করুন :