বাগমারায় ব্যবসায়ীকে তুলে নিয়ে হত্যার চেষ্টা

বাগমারায় ব্যবসায়ীকে তুলে নিয়ে হত্যার চেষ্টা

রাজশাহী

বাগমারা প্রতিনিধিঃ

বাগমারা উপজেলার শুভডাঙ্গা ইউনিয়নে দুর্বৃত্তরা উঠিয়ে নিয়ে টিপু সুলতান(৩৫) নামে এক ব্যবসায়ীকে মারপিট করে সাত লাখ টাকা কেড়ে নিয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। গুরুতরভাবে আহত টিপু সুলতানকে রাজশাহী মেডিকেলে ভর্তি করা হয়। বর্তমানে বাগমারা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছেন তিনি।

এলাকাবাসী ও টিপুর স্বজনেরা অভিযোগ করেন শুভডাঙ্গা ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল হাকিমের মদদপুষ্ট ক্যাডার বাহিনী এই ঘটনার সঙ্গে জড়িত।

জানা গেছে বারুইপাড়া গ্রামের তাকবর আলীর ছেলে টিপু সুলতান মচমইল বাজারে পানের ব্যবসা করে। গত ৬ এপ্রিল মঙ্গলবার চেয়ারম্যান আব্দুল হাকিমের ভাই মালেকের নেতৃত্বে মান্নান, পলাশ, বাহাদুর, সুমন সহ অজ্ঞাত ব্যক্তিরা মচমইল বাজার থেকে তাকে উঠিয়ে নিয়ে বেলতলা মোড়ে পলাশের অফিসে আটকে রাখে। এ সময় লোহার রড, হাতুড়ি দিয়ে তাকে অমানবিকভাবে মারপিট করা হয়। দুর্বৃত্তরা চিমটা দিয়ে টিপুর হাতের আঙ্গুল তুলে ফেলে। তার আর্তচিৎকারে আশেপাশের লোকজন এগিয়ে এসে অফিসের দরজা ভেঙে তাকে উদ্ধার করে এবং চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে নেয়।

দুর্বৃত্তরা টিপুর কাছে থাকা ব্যবসার সাত লাখ টাকা কেড়ে নেয় বলে চিকিৎসাধীন টিপু এই প্রতিবেদককে জানান।

ঘটনার পর হাটগাঙ্গোপাড়া তদন্ত কেন্দ্রের পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন ও প্রাথমিক তদন্ত করেছে। তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ এসআই রফিকুল ইসলাম জানান, প্রাথমিক তদন্তে মারপিটের ঘটনার সত্যতা পাওয়া গেছে। তবে এ বিষয়ে এখনো কোন মামলা হয়নি।

এলাকাবাসী জানান, ঘটনার সঙ্গে জড়িতরা মচমইল এলাকায় ছিনতাই, চাঁদাবাজি, জমিদখল, মাদক ব্যবসা সহ বিভিন্ন অপরাধ কর্মকান্ডে লিপ্ত। স্থানীয় চেয়ারম্যানের মদদপুষ্ট হওয়ায় তারা নির্বিঘ্নে এধরণের কর্মকান্ড চালিয়ে যাচ্ছে বলে উল্লেখ করেন। এলাকাবাসী ঘটনার সুষ্ঠ তদন্ত ও বিচার দাবি করেন। এ ঘটনায় আহত পরিবারের পক্ষ থেকে মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে জানা গেছে।

এ ব্যাপারে চেয়ারম্যান আব্দুল হাকিম প্রামানিক বলেন, আমার কোন বাহিনী নেই। কেউ আমার নাম ব্যবহার করলে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে। আমি সব সময় অন্যায়ের বিরুদ্ধে।

মন্তব্য করুনঃ

আপনার মন্তব্য করুন :