বাগমারায় যুব মহিলা লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত: সভাপতি শাহিনুর,সম্পাদক পারভীন

বাগমারায় যুব মহিলা লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত: সভাপতি শাহিনুর,সম্পাদক পারভীন

রাজশাহী

বাগমারা প্রতিনিধিঃ

রাজশাহীর বাগমারায় দীর্ঘ সময় পর অনুষ্ঠিত হলো বাংলাদেশ যুব মহিলা লীগ বাগমারা উপজেলা শাখার ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন। শনিবার সকাল ১০ টায় এ উপলক্ষে ভবানীগঞ্জ নিউ মার্কেট মিলনায়তনে এক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। উক্ত সম্মেলনের দ্বিতীয় অংশে কাউন্সিলরদের মতামতের ভিত্তিতে প্রার্থীতা ঘোষণা করা হয়। একাধিক প্রার্থী না থাকায় গত কমিটির সভাপতি প্রভাষক শাহিনুর খাতুনকে সভাপতি এবং সাধারণ সম্পাদক পারভীন আক্তারকে সাধারণ সম্পাদক হিসেবে ঘোষণা প্রদান করা হয়।

অনুষ্ঠানের শুরুতে জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলন, শান্তির প্রতীক পায়রা সহ উপজেলা যুব মহিলা লীগের ত্রি- বার্ষিক সম্মেলনের বেলুন উড়িয়ে দেয়া হয়। পরে উপজেলা যুব মহিলা লীগের সভাপতি প্রভাষক শাহিনুর খাতুনের সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক পারভীন আক্তারের পরিচালনায় সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।

এতে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, রাজশাহী-৪(বাগমারা) আসনের সংসদ সদস্য, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ইঞ্জিনিয়ার এনামুল হক বলেন, বাগমারায় যুব মহিলা লীগ একটি শক্তিশালী ও গঠনমূলক সংগঠন। যুব মহিলা লীগ প্রতিটি নির্বাচন সহ বিভিন্ন কাজে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে থাকে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করতে যুব মহিলা লীগের গুরুত্ব অনেক। তারা প্রতিটি সংগ্রামে ঝাঁপিয়ে পড়তে সর্বদা প্রস্তুত থাকে।

তিনি আরো বলেন, একজন নেতার দায়িত্ব হচ্ছে নেতৃত্বের বিকাশ ঘটানো। পদ নিয়ে বসে থাকার সুযোগ নেই। বাংলাদেশ আওয়াম লীগ জাতির জনকের সংগঠন। সেই সংগঠনের সহযোগি সংগঠন হচ্ছে যুব মহিলা লীগ। যুব মহিলা লীগকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানে আদর্শ নিয়ে সামনে এগিয়ে যেতে হবে। নিজের সার্থে সংগঠন করে লাভ নেই। জনস্বার্থে সংগঠন করতে হবে। বঙ্গবন্ধু সোনার বাংলা গড়ার কাজে নিজেকে আত্মনিয়োগ করতে হবে। সংগঠনের পদপদবী নিয়ে লাভ নেই। সংগঠনের গঠনতন্ত্র মেনে কাজ করতে হবে।

প্রধান অতিথি আরো বলেন, বাগমারা এক সময় ছিল সন্ত্রাসের জনপদ। যেখানে দিনের বেলায় লোকজন চলাচল করতে ভয় পেত। সেই বাগমারা আজ শান্তির জনপদে পরিনত হয়েছে। দক্ষ নেতৃত্বের ফলেই তা সম্ভব হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দূরদর্শী ভূমিকায় বাগমারার প্রত্যন্ত এলাকার মানুষের উন্নয়ন ঘটেছে। জীবন মান উন্নত হয়েছে। এই অবস্থা ঘরে রাখতে চাইলে আওয়ামী লীগ সরকারের কোন বিকল্প নেই। তাই যেকোন নির্বাচনে আওয়ামী লীগকে বিজয়ী করতে হবে।

ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনের উদ্বোধক ছিলেন, বাংলাদেশ যুব মহিলা লীগের সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপিকা অপু উকিল। বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, বাংলাদেশ যুব মহিলা লীগের সহ-সভাপতি আদিবা আনজুম মিতা এমপি, রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অনিল কুমার সরকার, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ গোলাম সারওয়ার আবুল, প্রধান বক্তা ছিলেন, রাজশাহী জেলা যুব মহিলা লীগের সভাপতি অধ্যাপিকা নার্গীস শেলী, সাধারণ সম্পাদক বিপাশা খাতুন। বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, বাংলাদেশ যুব মহিলা লীগের সহ-সভাপতি কোহেলী কুদ্দুস মুক্তি, পারভিন খায়ের, নার্গিস মাহাতাব, শারমিন জাহান মেরি, সদস্য লুনা হুমায়ুন পারভীন, পারুল আক্তার মল্লিক প্রমুখ।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন, এনাগ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মিসেস তহুরা হক, ভবানীগঞ্জ পৌরসভার মেয়র আব্দুল মালেক মন্ডল, তাহেরপুর পৌরসভার মেয়র আবউল কালাম আজাদ, উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি মতিউর রহমান টুকু, রিয়াজ উদ্দীন আহমেদ, আফতাব উদ্দীন আবুল, মরিয়ম বেগম, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সিরাজ উদ্দীন সুরুজ, আসাদুজ্জামান আসাদ, মকবুল হোসেন, সাংগঠনিক সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম, আল-মামুন, দপ্তর সম্পাদক নুরুল ইসলাম, উপজেলা মহিলা লীগের সভাপতি কহিনুর বানু, সাধারণ সম্পাদক জাহানারা বেগম, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান মমতাজ আক্তার বেবী সহ জেলা-উপজেলা আওয়ামী লীগ ও অংগ সহযোগী সংগঠনের সদস্যবৃন্দ। এর আগে উপজেলা আওয়ামী লীগের দলীয় কার্যালয়ে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তব অর্পন করেন প্রধান অতিথি সহ নেতৃবৃন্দ।

মন্তব্য করুনঃ

আপনার মন্তব্য করুন :