বায়ুমণ্ডল থেকে আসবে বিশুদ্ধ পানি!

বায়ুমণ্ডল থেকে আসবে বিশুদ্ধ পানি!

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি

বিজ্ঞান-প্রযুক্তি ডেক্সঃ

পৃথিবীর বায়ুমন্ডলে আছে ১ হাজার ৩০০ কোটি টন বিশুদ্ধ পানি। পানির জন্যই সৌরজগতের একমাত্র বসবাসযোগ্য গ্রহ পৃথিবী। পৃথিবীর ৭০ শতাংশই পানিতে বেষ্টিত। অথচ মানুষ এ পানির সংকটে ভুগছেন অনেকেই। বিশুদ্ধ পানির চাহিদা মানুষের মৌলিক চাহিদাগুলোর একটি।

জলবায়ু পরিবর্তন, অতিরিক্ত জনসংখ্যার কারণে সারাবিশ্বের ২০০ কোটি মানুষ বিশুদ্ধ সুপেয় পানি থেকে বঞ্চিত।  অনেক এলাকায় বিশুদ্ধ পানি পৌঁছাতেই পারে না। সারাবিশ্বে মানুষের সংখ্যা ৮০০ কোটি ছুঁই ছুঁই। তাই উন্নত প্রযুক্তিকে কাজে লাগিয়ে দুর্গম অঞ্চলে বিশুদ্ধ পানি পৌঁছে দেওয়ার কাজ করছে একদল গবেষক। 

ইসরায়েলভিত্তিক একটি ফার্ম ওয়াটারজেনের প্রধান মাইকেল মিরিলাশভিল জানান, বাতাস থেকে পানি উৎপন্ন করার প্রযুক্তি ব্যবহার করে বিশুদ্ধ পানি বের করে আনা হবে বায়ুমন্ডল থেকে। সেসব এলাকায় বিশুদ্ধ পানি পৌঁছে দেওয়া হবে, যেসব এলাকা দুর্গম আর জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাবে বিপর্যস্ত।তিনি ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে জানান, পানি মৌলিক অধিকার, লাখ লাখ মানুষ পানি পায় না।

বাতাস থেকে পানি বের করা সায়েন্স ফিকশনের মতো ঘটনা মনে হলেও প্রযুক্তির কল্যাণে এটা খুবই সহজ। পৃথিবীর বায়ুমন্ডলে ১ হাজার ৩০০ কোটি টন বিশুদ্ধ পানি আছে। ওয়াটারজেনের মেশিন বাতাস থেকে পানি ফিল্টার করে বের করে নিয়ে আসবে।মাইকেল জানান, যদি এই প্রযুক্তি সঠিকভাবে কাজ করে, তাহলে মানুষের জন্য কল্যাণকর একটি পদক্ষেপের বাস্তবায়ন হবে। বায়ুমন্ডল থেকে পানি আসবে, তাই এ প্রক্রিয়ায় পানি পরিবহন করা, লোহার ভারী পাইপ বসানোর কোনো প্রয়োজন নেই। আবার ভূপৃষ্ঠের দূষিত পানি বিশুদ্ধ করার ঝামেলা নেই, প্লাস্টিকের বোতল দিয়ে পৃথিবী দূষণেরও প্রয়োজন পড়বে না।

তবে এই উদ্যোগে একটা বাঁধা আছে। কারণ বায়ুদূষণ। বিশ্বের শীর্ষ অর্থনীতির দেশগুলোতে যে পরিমাণ বায়ু দূষিত হয়, তাতে বায়ুমন্ডল থেকে বিশুদ্ধ পানির ব্যবস্থা করলে তো মানুষের শরীরে বিষ প্রবেশ করবে। এ সমস্যারও সমাধান আছে। ইসরায়েলের তেল আবিব বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজ্ঞানীরা গবেষণা করেছে বিভিন্ন এলাকায়।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মানদণ্ড অনুযায়ী বিশুদ্ধ পানি বায়ুমন্ডল থেকে সংগ্রহ করা সম্ভব। দূষিত পানি থেকে বিশুদ্ধ পানি বের করে আনাও সম্ভব এই প্রযুক্তি দিয়ে।ওয়াটারজেনের বানানো বৃহত্তম মেশিনটি প্রতিদিন ৬ হাজার লিটার বিশুদ্ধ পানি দেয়। গাজার ভূখণ্ড আর মধ্য আফ্রিকার অনেক দুর্গম গ্রাম আছে, যেখানকার মানুষ ঘণ্টার পর ঘণ্টা হাঁটে বিশুদ্ধ পানি পাবার জন্য। এই মেশিন ২০২০ সালে অস্ট্রেলিয়ার ভয়াবহ দাবানলের সময় পানি সরবরাহ করেছে। অনেক উন্নত দেশের মানুষও বিশুদ্ধ পানি পান করতে পারে না।

মন্তব্য করুনঃ

আপনার মন্তব্য করুন :