যশোরে চাকরির প্রলোভনে নারীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ

যশোরে চাকরির প্রলোভনে নারীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ

জাতীয়

রাজশাহী টাইমস ডেক্সঃ

যশোর সদর উপজেলার বাহাদপুর গ্রামে এক নারী (২৮) গণধর্ষণের শিকার হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। ওই নারীর দাবি চাকরির প্রলোভন দিয়ে ডেকে এনে তাকে তিনজনে মিলে ধর্ষণ করেছে।

শুক্রবার (১২ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যার দিকে এ ধর্ষণের ঘটনা ঘটে।

নির্যাতিত নারী জানান, তিনি যশোরের অভয়নগর উপজেলার বাসিন্দা এবং এতিম। মানুষের বাড়িতে তিনি বেড়ে উঠেছেন। খুলনার ফুলতলা উপজেলার পত্তিপুর গ্রামের মানিক কুন্ডুর সঙ্গে তার পরিচয় ছিলো। মানিক কুন্ডু তাকে একটি চাকরি দেবার আশ্বাস দেয়। এজন্য তিনি ২০ হাজার টাকাও নেন।

বিগত দুই মাস ধরে চাকরি না দিয়ে টালবাহানা করছিলো। সর্বশেষ শুক্রবার ছুটির দিন নিয়োগকর্তার বাড়ি যশোরে নিয়ে যাবেন বলে জানান। সেই মোতাবেক শুক্রবার বিকেলে মানিক কুন্ডু তাকে নিয়ে যশোরে আসেন। যশোর পৌঁছানোর পর আরো দুইজনকে সঙ্গে নেন মানিক কুন্ডু। এরপর সন্ধ্যার দিকে ইজিবাইকে করে হাশিমপুর যাবার উদ্দেশে নিয়ে যায়। পথে রাস্তায় নেমে বলে মাঠের ভিতর দিয়ে যেতে হবে।

কিছুদূর যাওয়ার পর একজন তাকে জাপটে ধরে। বাধা দিলে মারপিট করা হয়। এরপর তিনজন মিলে তাকে ধর্ষণ করে ফেলে পালিয়ে যায়। অসুস্থ অবস্থায় সেখানে পড়ে থাকলে এক পথচারী তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করে।

যশোর জেনারেল হাসপাতালের মেডিক্যাল অফিসার আজিজুল হাকিম জানান, হাসপাতালে ভর্তি নারীকে পরীক্ষা নিরীক্ষা করে আলামত সংগ্রহ করা হয়েছে। তার গোপনাঙ্গ থেকে রক্তক্ষরণ হওয়ায় চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

এদিকে খবর পেয়ে হাসপাতালে ছুটে যান পুলিশের উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা। তারা নারীর অভিযোগ শুনেছেন এবং অভিযোগটি তদন্ত করে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে জানানো হয়েছে।

পুলিশের দায়িত্বশীল কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, অভিযোগের সত্যতা জানতে ও অভিযুক্তদের আটকে ইতিমধ্যে পুলিশের একাধিক টিম কাজ শুরু করেছে।

মন্তব্য করুনঃ

আপনার মন্তব্য করুন :