রাজশাহীতে চলছে মৃদু শৈত্যপ্রবাহ

রাজশাহীতে চলছে মৃদু শৈত্যপ্রবাহ

রাজশাহী

মোঃ ইসরাফিল হোসেন:

পৌষের শুরুতেই রাজশাহীতে চলছে মৃদু শৈত্যপ্রবাহ। ঘন কুয়াশার চাদরে ঢাকা পড়েছে পুরে জেলা। বইছে হিমেল হাওয়াও। এতে বেড়েছে শীতের তীব্রতা। জনজীবনে পড়েছে এর প্রভাবও।

১৪ ডিসেম্বর থেকে কমতে শুরু করে রাজশাহীর তাপমাত্রা। ১৬ ডিসেম্বর থেকে শুরুর হয় মৃদু শৈত্যপ্রবাহ। এদিন ভোর ৬টায় রাজশাহীতে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়। এটি এবারের শীত মৌসুমে জেলার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা।

এদিকে হঠাৎ তাপমাত্রা কমে যাওয়ায় দুর্ভোগের মধ্যে পড়েছেন ছিন্নমূল মানুষ। বিপাকে পড়েছেন খেটে খাওয়া শ্রমজীবীরা। সকালের ঘন কুয়াশায় পরিবহন চলাচলেও দুর্ভোগের মধ্যে পড়তে দেখা গেছে চালকদের। সারাদিনই শীতের পোশাক পরে রাস্তায় চলাফেরা করছেন মানুষ। চর এলাকায় শীতের তীব্রতা শহরের চেয়ে বেশি। এসব এলাকার মাঠঘাটে কাজ করা মানুষ পড়েছেন দুর্ভোগে। গ্রামের অনেক জায়গায় খড়কুটো জ্বালিয়ে শীত নিবারণ করতেও দেখা গেছে।

রাজশাহী আবহাওয়া অফিসের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা কামাল হোসেন জাগো নিউজকে বলেন, লঘুচাপের প্রভাবে কিছুটা হিমেল হাওয়া বইছে। এর ফলে দুদিন ধরে তাপমাত্রা কমছে। শুক্রবার রাজশাহীতে ৯ দশমিক ৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস রেকর্ড হয়েছে। আগের দিন বৃহস্পতিবার রাজশাহীতে ১১ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা রেকর্ড হয়। বুধবার এ তাপমাত্রা ছিল ১৩ দশমিক ৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

কামাল হোসেন বলেন, তাপমাত্রা ৮ থেকে ১০ ডিগ্রি সেলসিয়াসের মধ্যে নামলে তা মৃদু শৈত্যপ্রবাহ। ৬ থেকে ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াসকে মাঝারি শৈত্যপ্রবাহ এবং ৬ ডিগ্রি সেলসিয়াসের নিচের তাপমাত্রাকে তীব্র শৈত্যপ্রবাহ ধরা হয়। সে অনুযায়ী রাজশাহীতে এখন শুরু হয়েছে মৃদু শৈত্যপ্রবাহ। এখন ধীরে ধীরে তাপমাত্রা আরও কমবে। তবে রোববার পর্যন্ত তাপমাত্রা একই রকম থাকতে পারে। এ সময়ের মধ্যে হালকা থেকে মাঝারি ধরনের কুয়াশা পড়তে পারে।

মন্তব্য করুনঃ

আপনার মন্তব্য করুন :