রাজশাহীর পুঠিয়ায় করোনায় ক্ষতিগ্রস্ত ৫ শো পরিবারের পাশে ওয়ান ব্যাংক

রাজশাহীর পুঠিয়ায় করোনায় ক্ষতিগ্রস্ত ৫ শো পরিবারের পাশে ওয়ান ব্যাংক

রাজশাহী

লিয়াকত রাজশাহী: 

রাজশাহীর জেলা প্রশাসনের সহযোগিতায়  পুঠিয়া উপজেলায় করোনা ভাইরাসের ফলে সৃষ্ট পরিস্থিতিতে ৫ শো ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের মাঝে ত্রাণ সহায়তা প্রদান করা হয়। বুধবার (১৪ জুলাই) সকাল ১১ টায় পুঠিয়া উপজেলা প্রাঙ্গণে ওয়ান ব্যাংকের সৌজন্যে প্রধান অতিথি হিসেবে ত্রাণ সহায়তা প্রদান করেন পুঠিয়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার নূরুল হাই মোহাম্মদ আনাছ।

পুঠিয়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার নূরুল হাই মোহাম্মদ আনাছ বলেন, করোনা ভাইরাসের কবল থেকে রক্ষায় সরকার বিভিন্ন সময় নানান পদক্ষেপ গ্রহণ করে চলেছেন। করোনায় অনেকেই অসহায় হয়ে পড়েছে। ভেঙ্গে পড়েছে মানুষের স্বাভাবিক জীবন যাত্রার মান। এদিকে করোনা সংক্রমনের শুরু থেকে ক্ষতিগ্রস্তদের পাশে আছে পুঠিয়া উপজেলা প্রশাসন। করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে আক্রান্ত ও মৃত্যুর সংখ্যা বেড়েই চলেছে। খাদ্য সংকটেও রয়েছে অনেক পরিবার। এরই মধ্যেও উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে মাস্ক বিতরণ ও ত্রাণ সহায়তা অব্যাহত রয়েছে।

তিনি আরও জানান, প্রতিটি দুর্যোগে প্রধানমন্ত্রী জনগণের পাশে আছে আগামীতেও থাকবে। উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় যারা খাদ্য সংকটে আছে তাদের অনেকের কাছে সরকারী ভাবে খাদ্য সহায়তা পৌঁছে দেয়া হচ্ছে। এছাড়াও আজকে সরকারের পাশাপাশি ওয়ান ব্যাংকের সৌজন্যে ও জেলা প্রশাসনের সহযোগিতায় পুঠিয়া উপজেলায় ৫ শো  অসহায়দের তালিকা তৈরি করে খাদ্য সহায়তা প্রদান করা হলো।

ওয়ান ব্যাংক রাজশাহী শাখার ভাইস প্রেসিডেন্ট ও ম্যানেজার মো. আব্দুল মান্নান জানান, জেলা প্রশাসনের সার্বিক সহযোগিতায় ‘ওয়ান ব্যাংক’ রাজশাহী জেলায় ৪ টি ফেজে প্রায় ২২ শো দুস্থ ও অসহায় মানুষের মাঝে এই ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করছে। এর ধারাবাহিকতায়  আজকে তৃতীয় ফেজে  পুঠিয়া  উপজেলায় ৫ শো জন করোনায় ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারকে ত্রাণ সহায়তা প্রদান করা হলো। এছাড়াও প্রথম ফেজে রাজশাহী মহানগরীতে ৬৫০ জন ও দ্বিতীয় ফেজে  পবা উপজেলায় ৫ শো জন দুস্থ ও অসহায় মানুষের মধ্যে ত্রাণ বিতরণ করা হয়েছে। এরপর চতুর্থ ফেজে গোদাগাড়ী উপজেলায় এই ত্রাণ বিতরণ কার্যক্রমের পরিসমাপ্তি হবে বলে জানান তিনি।

এছাড়াও তিনি আরও জানান, আমরা রাজশাহী জেলায় সামাজিক দায়বদ্ধতা থেকে ওয়ান ব্যাংকের পক্ষ থেকে সবচেয়ে বেশি ত্রাণ সহায়তা দিতে সক্ষম হয়েছি। ত্রাণ  সামগ্রীর হিসেবে প্রতিটি প্যাকেটে  রয়েছে চাল ১৫ কেজি, আলু ৫ কেজি, আটা ১ কেজি, মসুর ডাল ১ কেজি, পেয়াজ ১ কেজি, তেল ১লিটার, লবন ১ কেজি, সাবান ১টি ও মরিচের গুড়া ১০০ গ্রাম।ওয়ান ব্যাংক রাজশাহী শাখার ভাইস প্রেসিডেন্ট ও ম্যানেজার মো. আব্দুল মান্নান এর সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, পবা উপজেলার পরিষদের চেয়ারম্যান জিএম হিরা বাচ্চু, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান মৌসুমী রহমান ও পুরুষ ভাইস চেয়ারম্যান মুকুলসহ ওয়ান ব্যাংক রাজশাহী শাখার কর্মকর্তাবৃন্দ।

মন্তব্য করুনঃ

আপনার মন্তব্য করুন :