রাজশাহীর মোহনপুরে ১২ বছরের শিশুকে ধর্ষণ, অভিযুক্ত গ্রেপ্তার

রাজশাহীর মোহনপুরে ১২ বছরের শিশুকে ধর্ষণ, অভিযুক্ত গ্রেপ্তার

রাজশাহী

নিজস্ব প্রতিবেদক :

রাজশাহীর মোহনপুরে ১২ বছরের এক শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। অসুস্থ অবস্থায় ওই শিশুকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালের ওয়ান-স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে (ওসিসি) ভর্তি করা হয়েছে।

গত শুক্রবার দুপুর ১টার দিকে উপজেলার পিয়ারপুর বাঁধের ধারে পান বরজে এ ঘটনা ঘটে। শনিবার ধর্ষণের ঘটনায় অভিযুক্ত মকবুল হোসেনকে (৪৫) গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। এই ঘটনায় ওই শিশুর মা বাদি হয়ে থানায় ধর্ষণের মামলা দায়ের করেছেন।

পুলিশ ও স্থানীয় লোকজন জানান, গত শুক্রবার দুপুর ১টার সময় শিশুটি বাড়ির পশ্চিম পাশে বাঁধের ধারে হাঁস দেখতে যায়। প্রতিবেশী পিয়ারপুর বাঁধের ধার গ্রামের আহসান হোসেনের ছেলে মকবুল হোসেন (৪৩) শিশুটিকে ফুঁসলিয়ে একটি পান বরজে নিয়ে যান। সেখানে ভয়ভীতি দেখিয়ে তাঁকে ধর্ষণ করেন। এ সময় পান বরজে কেউ ছিল না। বাড়িতে এসে একপর্যায়ে শিশুটি কান্নাকাটি করতে থাকে। বাড়ির লোকজন জিজ্ঞাসা করলে ঘটনাটি খুলে বলে।

শিশুটির মা বলেন, থানায় অভিযোগ করতে চাইলে অভিযুক্ত ব্যক্তি মকবুল হোসেনের বিহায় (ছেলের শ্বশুর) আনারুল ইসলাম আমাদেরকে নানাভাবে হুমকি প্রদান করতে থাকে।

পরে স্থানীয় এক ইউপি সদস্যের সহযোগিতায় শনিবার সকালে মোহনপুর থানায় মামলা দায়ের করেন তিনি। পুলিশ দ্রুত এলাকায় পৌঁছে আসামি মকবুল হোসেনকে গ্রেপ্তার করে। ধর্ষণের শিকার শিশুকে চিকিৎসার জন্য রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওসিসিতে ভর্তি করা হয়েছে।

মোহনপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) তৌহিদুল ইসলাম বলেন, ঘটনা জানার পরই পুলিশ দ্রুত আসামিকে গ্রেপ্তার করেছে। থানায় মামলা হয়েছে। ধর্ষণের শিকার শিশুটিকে চিকিৎসার জন্য রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওসিসিতে ভর্তি করা হয়েছে। শনিবার আসামিকে আদালতের মাধ্যমে জেল-হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

মন্তব্য করুনঃ

আপনার মন্তব্য করুন :