শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার সরকারি সিদ্ধান্তের সাথে একমত কারিগরি কমিটি

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার সরকারি সিদ্ধান্তের সাথে একমত কারিগরি কমিটি

শিক্ষা

রাজশাহী টাইমস ডেক্সঃ

শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলার সরকারি সিদ্ধান্তের সাথে একমত কোভিড নাইন্টিন সংক্রান্ত কারিগরি কমিটি। কমিটির সভাপতি অধ্যাপক ডাক্তার মুহাম্মদ শহিদুল্লা বলেন, করোনার সংক্রমণ কমে আসছে, সেই সাথে দীর্ঘদিন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় শিক্ষার্থীরা ক্ষতির মধ্যে পড়ছেন। তাই পরীক্ষামূলক ভাবে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলা যেতে পারে।

করোনার সংক্রমণের ঝুঁকি এড়াতে ২০২০ সালের ১৭ই মার্চ থেকে বন্ধ করে দেয়া হয় শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। দীর্ঘদিন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় ক্লাস পরীক্ষা অনলাইনে নেয়া হয়।

সম্প্রতি দেশে করোনার সংক্রমণের কমতে থাকায় শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলার বিষয়ে মন্ত্রীর সভাপতিত্বে বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। সভা থেকে করোনার সংক্রমণের কারণে উচ্চ মাধ্যমিক পর্যন্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের চলমান ছুটি ৩১শে আগস্ট পর্যন্ত বাড়ানো হয়। শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলার বিষয়ে কোভিড নাইন্টিন সংক্রান্ত কারিগরী পরামর্শক কমিটির মতামত চাওয়া হয়।

এ প্রসঙ্গে শিক্ষামন্ত্রী ডাক্তার দীপু মনি বলেন,’অক্টোবারের মাঝামাঝির পর আমরা আশা করছি বিশ্ববিদ্যালয়গুলো খুলে দিতে পারবো। কোভিড সংক্রমণ শতকরা ৫ ভাগ বা তার নিচে নামলে স্কুলগুলোকে খোলা যায় বিজ্ঞাণ সম্মতভাবে বললে এমনটিই বলা যায়।’

কোভিড নাইন্টিন সংক্রান্ত কারিগরী পরামর্শক কমিটির সভাপতি অধ্যাপক ডা. মুহাম্মদ শহিদুল্লা ডিবিসি নিউজকে জানান, পরীক্ষামূলক ভাবে বিশ্ববিদ্যালয় খুলে দেয়া যেতে পারে। তবে তার আগে সংশ্লিষ্টদের ভ্যাকসিন নিশ্চিত করতে হবে।

কোভিড নাইন্টিন সংক্রান্ত কারিগরী পরামর্শক কমিটির সভাপতি অধ্যাপক ডাক্তার মোহাম্মদ সহিদুল্লা বলেন,’কোন কোন স্থানে ৮৫ শাতাংশ আবার কোথাও ৯০ শতাংশের ওপরে টিকা পেয়ে গেছে। স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলা হয়। ক্লাশে যদি গাদাগাদি করে না বসতে হয় তবে আমি মনে করি অসুবিধা হবে না।’

দীর্ঘদিন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় উচ্চ মাধ্যমিক, মাধ্যমিক ও প্রাইমারি স্কুলের শিক্ষার্থীদের মানসিক ও শারীরিক বিকাশ বাধাগ্রস্ত হচ্ছে বলে মনে তিনি।

অধ্যাপক ডাক্তার মোহাম্মদ সহিদুল্লা আরও বলেন,’পুথিগত বিদ্যাই শুধু বিদ্যা নয়। একজনের সঙ্গে অপর জনের কমিউনিকেশন না হওয়াতে, ফিজিক্যাল একটিভিটি না হওয়াতে অনেক বাচ্চাই কিন্তু মানষিক এবং শারীরিক স্বাস্থ্য সমস্যায় ভুগছে।’

স্বাস্থ্যবিধি মেনে স্কুল, কলেজ খুলে দেয়ার পক্ষে মত কোভিড নাইন্টিন সংক্রান্ত জাতীয় কারিগরী পরামর্শ কমিটির সভাপতির। অধ্যাপক ডাক্তার মোহাম্মদ সহিদুল্লা , সভাপতি, কোভিড নাইন্টিন সংক্রান্ত কারিগরী পরামর্শক কমিটি

মন্তব্য করুনঃ

আপনার মন্তব্য করুন :