শিবগঞ্জে গলা কেটে শ্বাশুড়ি হত্যায় পুত্রবধূসহ গ্রেফতার ২

শিবগঞ্জে গলা কেটে শ্বাশুড়ি হত্যায় পুত্রবধূসহ গ্রেফতার ২

রাজশাহী

শিবগঞ্জ প্রতিনিধি:

চাঁঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জে স্বামী পরিত্যক্তা যমুনা পাল নামে শ্বাশুড়ি হত্যা মামলায় পুত্রবধুসহ দুই জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

গ্রেফতাররা হলেন- যমুনা পালের পুত্রবধূ অর্থাৎ
তার ছেলের স্ত্রী পলি রানী পাল (২২) ও সদর উপজেলার গোবরাতলা ইউনিয়নের মহিপুর এলাকার গুলজার হোসেনের ছেলে মেহেদী হাসান (২৪)।

বুধবার (১০ মার্চ) বিকেলে শিবগঞ্জ থানার ওসি ফরিদ হোসেন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, যমুনা পাল হত্যার ঘটনায় দুজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। পলি রানী পাল হত্যার
ঘটনায় জড়িত থাকার কথা প্রাথমিকভাবে স্বীকার করেছে। অন্যদিকে গ্রেফতারকৃত
মেহেদীকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য রিমান্ডে নেয়া হয়েছে। হত্যা মামলাটি গুরুত্ব সহকারে তদন্ত
করা হচ্ছে।

উল্লেখ্য যে গত বুধবার (৩ মার্চ) রাতে শিবগঞ্জ পৌর এলাকার কুমারপাড়া-বাবুপাড়ার একটি ভাড়া বাসায় ওই নারীকে গলা কেটে হত্যা করে। পরদিন বৃহস্পতিবার ভোরে নিহতের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।

অপরদিকে শিবগঞ্জ উপজেলার কানসাট পুঠিমারী বিলের একটি ব্রিজের নিচ থেকে মজলুর রহমান ভোদু নামে এক অটোচালকের লাশ গত ২৪ ফেব্রুয়ারী উদ্ধার করে থানা পুলিশ। এ ঘটনায় ওইদিনই নিহতের ভাই তোজাম্মেল হক বাদি হয়ে অজ্ঞাতনামা আসামী করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। কিন্তু অটোচালক ভোদু হত্যা মামলা বুধবার পর্যন্ত রহস্য উদঘাটন করতে পারেনি পুলিশ। এমনকি কাউকে শনাক্ত করতে পারেনি বলে জানান ওসি ফরিদ হোসেন।

ওসি আরও জানান, ঘটনা উদযাটনের মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা শিবগঞ্জ থানার পরিদর্শক (অপারেশন) আবদুল মালেক জোর তৎপরতা অব্যহত রেখেছেন। নিহত মজলুর রহমান ভোদু উপজেলার বিনোদপুর ইউনিয়নের একবরপুর জাব্বার বিশ্বাসটোলার গ্রামের আইনাল হকের ছেলে।

মন্তব্য করুনঃ

আপনার মন্তব্য করুন :