সাম্প্রদায়িক হামলার প্রতিবাদে রাজশাহীতে বিক্ষোভ

সাম্প্রদায়িক হামলার প্রতিবাদে রাজশাহীতে বিক্ষোভ

রাজশাহী

লিয়াকত হোসেন রাজশাহী:

শারদীয় দুর্গোৎসবের মহাঅষ্টমি, মহানবমী ও বিজয়া দশমীতে কুমিল্লা, চঁাদপুরের হাজীগঞ্জ, নোয়াখালির চৌমুহনি, চট্টগ্রাম, রংপুরের পিরগঞ্জ সহ সারা দেশের বিভিন্ন জেলায় মন্দির ও দুর্গাপূজার মন্ডপ এবং প্রতিমা ভাংচুর, হিন্দুদের বাড়ীঘরে ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হামলা ও লুটপাট, অগ্নিসংযোগ এবং ইসকন মন্দিরে হামলা চালিয়ে মানকি সাহা, যতন সাহা, নিমাই কৃষ্ণ-কে হত্যা করা ও নারকীয় সাম্প্রদায়িক হামলার প্রতিবাদে কেন্দ্রীয় কর্মসূচীর অংশ হিসেবে বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদ, বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ, সনাতন বিদ্যার্থী সংসদ, মহিলা ঐক্য পরিষদ, ছাত্র ঐক্য পরিষদ, ইসকন রাজশাহী ও রাজশাহীর সকল পূজা মন্ডপের উদ্যোগে আজ শনিবার সকাল ০৯টায় সাহেব বাজার জিরো পয়েন্টে গণ অবস্থান, গণঅনশন ও বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়।

সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদ, রাজশাহী মহানগরের সভাপতি ড. সুজিত সরকার। বক্তব্য রাখেন রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ও বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদ, রাজশাহী জেলার সভাপতি অনিল সরকার, বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদ, রাজশাহী মহানগরের সাধারণ সম্পাদক শ্যামল কুমার ঘোষ, সহ-সভাপতি দেবাশীষ প্রামানিক দেবু, অধ্যক্ষ রাজকুমার সরকার, বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদ, রাজশাহী জেলার সাধারণ সম্পাদক অসিত কুমার ঘোষ, নগর হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের যুগ্ম সম্পাদক অধ্যক্ষ রনজিৎ সাহা, সাংগঠনিক সম্পাদক উজ্জ্বল ঘোষ, নগর পূজা উদযাপনের সভাপতি অলোক কুমার দাস, সাধারণ সম্পাদক শরৎ চন্দ্র সরকার, জেলার সভাপতি অম্বর সরকার, সাধারণ সম্পাদক কাঞ্চন রায় চৌধুরী, নগর সহ-সভাপতি আনন্দ কুমার ঘোষ, গৌতম দাস, বিপন্ন কুমার সরকার, সাংগঠনিক সম্পাদক মৃদুল সাহা, ছাত্র ঐক্য পরিষদের আহ্বায়ক রুদ্র ধর, সনাতন বিদ্যার্থী সংসদের সমন্বয়ক রনি সরকার, ইসকন রাজশাহী কেন্দ্রের অধ্যক্ষ রামেশ্বর দাস।

গণঅনশনের শুরুতে খেলাঘরের শিল্পীরা গণসঙ্গীত পরিবেশন করেন।সমাবেশে অনিল সরকার বলেন, সারাদেশে সংখ্যালঘুদের উপর হামলা-নির্যাতন বন্ধ করতে হবে। অবিলম্বে হামলা, নির্যাতন, হত্যা ও অগ্নিসংযোগের সাথে জড়িতদের গ্রেফতার করে বিচারের মুখোমুখী করতে হবে। সংখ্যালঘু সুরক্ষা আইন অতি দ্রুত প্রণয়ন করতে হবে। 

শ্যামল কুমার ঘোষ বলেন, অবিলম্বে সারাদেশে নারকীয় তান্ডবকারী ও উগ্র সাম্প্রদায়িক গোষ্ঠিকে আইনের আওতায় এনে কঠোর শাস্তি নিশ্চিত করতে হবে। সংখ্যালঘু জনসাধারণদের নিরাপত্তার জন্য সংখ্যালঘু মন্ত্রনালয় ও হিন্দু ফাউন্ডেশন গঠন করতে হবে। বঙ্গবন্ধুর অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশে সাম্প্রদায়িক অপশক্তিকে কোন ভাবে প্রশয় দেওয়া যাবে না। অতি দ্রুত তাদের বিষদঁাত উপড়ে ফেলতে হবে। 

মন্তব্য করুনঃ

আপনার মন্তব্য করুন :