হলফনামায় তথ্য গোপন করায় মেয়রের বিরুদ্ধে মামলা

হলফনামায় তথ্য গোপন করায় মেয়রের বিরুদ্ধে মামলা

রাজশাহী

স্টাফ রিপোর্টারঃ

হলফনামায় তথ্য গোপন করায় রাজশাহীর মুণ্ডুমালায় পৌরসভার নবনির্বাচিত মেয়র সাইদুর রহমানের বিরুদ্ধে আদালতে মামলা হয়েছে।

আওয়ামী লীগ মনোনীত ও নির্বাচনে পরাজিত মেয়রপ্রার্থী আমির হোসেন আমিন বাদী হয়ে সোমবার রাজশাহীর যুগ্ম জেলা ও দায়রা জজ আদালতে এ মামলা করেন।

মামলায় সহকারী রিটার্নিং ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার, তানোর উপজেলা নির্বাচন অফিসার, প্রধান নির্বাচন কমিশনার, নির্বাচন কমিশনার ও রাজশাহীর বিভাগীয় কমিশনারকে মামলায় বিবাদী করা হয়েছে।

মামলার এজাহারে বলা হয়েছে, মুণ্ডুমালার নির্বাচিত মেয়র সাইদুর রহমানের স্ত্রী সাহিদা বেগম সাগর ট্রেডার্স নামে একটি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের স্বত্বাধিকারী। সাইদুরের স্ত্রীর প্রতিষ্ঠানটি মুণ্ডুমালা পৌরসভার তালিকাভুক্ত প্রথম শ্রেণির ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান।

মুণ্ডুমালা পৌরসভায় সাগর ট্রেডার্সের নামে একাধিক প্রকল্পের ঠিকাদারি কাজ চলমান রয়েছে বর্তমানে। তবে নির্বাচনে প্রার্থী হওয়ার সময় নির্বাচন কমিশন ও রিটার্নিং অফিসারের কাছে দাখিলকৃত হলফনামায় সাইদুর রহমান এই তথ্যটি গোপন করেছেন। সাইদুর রহমানের স্ত্রী একজন ব্যবসায়ী হলেও তা তার হলফনামায় উল্লেখ করেননি।

সাইদুর রহমান যদিও হলফনামায় বলেছেন, তার স্ত্রী তার আয়ের ওপর এবং তিনি তার স্ত্রীর আয়ের ওপর নির্ভরশীল। এই তথ্য গোপনের জন্য সাইদুর রহমানের প্রার্থিতা বাতিল হতে পারত। কিন্তু মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাইকালে রিটার্নিং অফিসার তা ধামাচাপা দিয়েছেন।

মামলার বাদী আমির হোসেন আমিনের আইনজীবী এজাজুল হক মানু বলেন, সাইদুর রহমানের স্ত্রী মুণ্ডুমালা পৌরসভায় একাধিক প্রকল্পের কাজের ঠিকাদার। কিন্তু তিনি সেই তথ্যটি গোপন করেছেন। এতে নির্বাচনী আইনের স্পষ্ট লঙ্ঘন হয়েছে।

ফলে আমরা তার প্রার্থিতা বাতিলের আবেদন করেছি। আদালত বিবাদীদের কাছে বিষয়টি সম্পর্কে জানতে চেয়েছেন।

গত ৩০ জানুয়ারি এই নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। এতে মামলার বাদী আমির হোসেন আওয়ামী লীগের মেয়রপ্রার্থী ছিলেন। নির্বাচিত মেয়র সাইদুর রহমান বিদ্রোহী প্রার্থী ছিলেন। ২ নম্বর প্রতিপক্ষ বিএনপির মনোনীত মেয়রপ্রার্থী ছিলেন।

এই নির্বাচনে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী সাইদুর রহমান পেয়েছেন ৫ হাজার ৪৫৯ ভোট। আওয়ামী লীগের প্রার্থী আমির হোসেন পেয়েছেন ৫ হাজার ৩৯৮ ভোট। বিএনপির প্রার্থী পেয়েছেন ৩ হাজার ৬৮১ ভোট। ৬১ ভোটের ব্যবধানে সাইদুর রহমান মেয়র নির্বাচিত হয়েছেন।

এদিকে গত ৩০ জানুয়ারি মুণ্ডুমালা পৌরসভার নির্বাচনে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী সাইদুর রহমান ৫ হাজার ৪৫৯ ভোট পেয়ে মেয়র নির্বাচিত হন। তিনি প্রতিদ্বন্দ্বী নৌকা প্রতীকের প্রার্থী আমির হোসেন আমিনের চেয়ে মাত্র ৬১ ভোট বেশি পেয়ে বিজয়ী হন।

বিষয়টি সম্পর্কে জানতে চাইলে নবনির্বাচিত মেয়র সাইদুর রহমান বলেন, ঠিকাদারি লাইসেন্স রয়েছে তার স্ত্রীর নামে। তবে তার নিজের নামে কোনো ব্যবসা প্রতিষ্ঠান নেই। এটি তিনি হলফনামাতে উল্লেখ করেননি। এতে নির্বাচনী আইনের কোনো লঙ্ঘন হয়নি। তিনি আইনিভাবে এ মামলা মোকাবিলা করবেন।

মন্তব্য করুনঃ

আপনার মন্তব্য করুন :